শনিবার, ১১ জুলাই, ২০২০

গ্রিসের নতুন কবিতা || রুদ্র কিংশুক || মারিয়া তোপালি-র কবিতা

গ্রিসের নতুন কবিতা 
রুদ্র কিংশুক 
মারিয়া তোপালি-র কবিতা




মারিয়া তোপালি  (Maria Topali ,1964) জন্মেছেন গ্রিসের থেসালোনিকি শহরে। আথেন্স ইউনিভার্সিটিতে তিনি পাঠ নিয়েছেন আইনবিদ্যার। তাঁর প্রকাশিত কবিতার বইগুলি:
Tea Set 1999
London and Other Poems 2006 প্রমুখ।
জার্মান কবি রিলকের কবিতা তিনি অনুবাদ করেছেন গ্রিক ভাষায়।

১.
অজানা পতঙ্গ

আমি জেনেছি এই গ্রীষ্মে আমার মৃত্যু

 এখন দেওয়ালের শীতলতা অলৌকিক
মোটা পাইপের জল শিশুদের শরীরে উপহার
 তাদের ত্বক --- যা প্রতিদিন আবৃত করে রাখে
নতুন উত্তেজনা --- তোমাকে অবাক করে

সবকিছু হয়ে যাবে আবার সহজ
 সাহসী হাসি এখন অপ্রয়োজনীয়
দুঃখের প্রেতচ্ছায়ার সন্মুখে

যদিও তারা ছিল কাল কাল আগমন বার্তাবাহক
 যেকোনো এক বিকালে গলা ব্যথা আর ব্যথা আর গলা ব্যথা আর ব্যথা আর আর বদহজম নিয়ে
 একটা ছোট লাল দাগ --- অজানা পতঙ্গ

 শান্তভাবে আমরা বন্ধ করব
যতটা সম্ভব পারা
যা কিছু শুরু হয়েছিল আগে

২.
শীতের সূচনা

গাছেরা দাঁড়ালো সারিবদ্ধ
 বৃষ্টি হবে না
পাতাদের ভেতর হেমন্ত বাধিয়েছে বিদ্রোহ

উঁচু থেকে দেখলে পরিষ্কার যে ন'টা গাছ
তৈরি করেছে নতুন সবুজ আয়তক্ষেত্র
তাদের ছায়ার ভেতর ধরে রেখেছে এখনও
গ্রীষ্মের সুগন্ধ

 কিন্তু সেখানে শীতের দেবদূত
 দুটো বনপায়রা এসেছে
তাদের গোলাপি বুকের ওপর সাদা কন্ঠহার

সেখানেই কাটাবে যৌথ জীবন, এই পরিকল্পনা গ্রীষ্ম শেষে শীতের সূচনা

৩.
হালকা নীল পশ্চাদপটে স্বপ্ন

তোমার ভেতরে সিঁড়ি দিয়ে নেমে যাও
এবং নিভিয়ে দাও আলো

(আর যদি আলো না নেভাও
তুমি তবুও দেখবে কেবল অন্ধকার
আর তারপর গভীরতর ঘনতর অন্ধকার
ঠিক একটা ড্রাগনের গুহার মত)

আমি সেন্ট জর্জ মুক্ত করবো সর্বাঙ্গসুন্দরকে
 যাকে বন্দি রেখেছিলাম আমার পেটের ভেতর
 আমি একজন ড্রাগন

1 টি মন্তব্য:

একগুচ্ছ হাইকু || সুধাংশুরঞ্জন সাহা || কবিতা

একগুচ্ছ হাইকু সুধাংশুরঞ্জন সাহা (এক) আমার আছে নানা রঙের পাখি মায়াবী চোখে । (দুই) দুদিন ছিল একটু মনমরা ঘরে বাইরে । (তিন) আজ আবার মানুষ মেখেছ...