Friday, July 3, 2020

রক্তদান শিবির


রক্তদান শিবির


নিজস্ব সংবাদ, কেশিয়াড়ি ০৩-০৭-২০২০ ||'করোনা' আর তার ফলে ঘটে যাওয়া এই কঠিন পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে থাকার জন্য মানুষের বড়োই অভাব এ সমাজে। হাসপাতাল গুলোতে রক্তের বড়োই আকাল পড়েছে।আর সেই অভাব কিছুটা হলেও নিরসনের জন্য, যৌথভাবে স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবিরের উদ্যোগ গ্রহণ করলো কেশিয়াড়ী ব্লকের "বিদ্যাসাগর জন্ম দ্বি-শত বর্ষ উৎযাপন কমিটি"ও "নালন্দা এডুকেশন সার্ভিস সোসাইটি"।কেশিয়াড়ী ব্লকের অন্তর্গত"খাজরা" বাজার সন্নিকটে খাজরা এস.সি.এম হাইস্কুলে আজ ৩রা জুলাই এই মহান উদ্যোগ অনুষ্ঠিত হয়। প্রায় ৩৫জন স্বেচ্ছায় রক্তদান করলেন এবং এই মহৎ কর্মসম্পাদনে সম্পূর্ণরূপে সহযোগিতা করেছেন খড়্গপুর মহকুমা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।
সেইসঙ্গে লাদাখের গালওয়াল  সীমান্তে যে কুড়িজন বীর জওয়ান শহীদ হয়েছেন,তাদের প্রতিও যোগ্য শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করেন যৌথ সংগঠনের সদস্যবৃন্দ। শহীদ বেদীতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের মধ্য দিয়ে। প্রবাদপ্রতিম পুরুষ বিদ্যাসাগরের প্রতিকৃতিতে মাল্যদানের মধ্য দিয়ে স্মরণ করা হয় পণ্ডিত ঈশ্বর চন্দ্র বিদ্যাসাগরকে।রক্তদান জীবন দান এই মহান উদ্যোগকে সাফল্যমন্ডিত করার জন্য উপস্থিত ছিলেন বিদ্যাসাগর দ্বিশতবর্ষ উৎযাপন কমিটির পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সহ সভাপতি'হরেকৃষ্ণ সামন্ত'।জেলার সহ সম্পাদক'প্রভাত ভট্টাচার্য্য,কেশিয়াড়ী ব্লক কমিটির সভাপতি'সুভাষ চন্দ্র জানা',সম্পাদক প্রবীর ভট্টাচার্য্য,খাজরা হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক'সঞ্জয় মোদক' ও নালন্দা সোসাইটির সম্পাদক'চয়ন বেরা' ও সভাপতি'প্রবীর পাত্র', প্রমুখরা।এ হেন কর্মসূচি এই প্রথম নয়,যৌথ সংগঠনের সদস্যবৃন্দ পুরো লকডাউন পরিস্থিতিতে ধারাবাহিকভাবে অভাবী মানুষগুলোর পাশে দাঁড়িয়েছে।কখনো শুকনো খাবার তুলে দেওয়া, আবার কখনো রান্না করা খাবার তুলে দেওয়া প্রভৃতি সেবামূলক কাজ এই প্রত্যন্ত এলাকা জুড়ে ক্রমান্বয়ে বজায় রেখেছে।

No comments:

Post a Comment

বিষ্ময়কর চিহ্নের পিঠে... || আমিনুল ইসলাম || কবিতা

বিষ্ময়কর চিহ্নের পিঠে...  আমিনুল ইসলাম  ফ্লাইং কিস! মানেই- কাঠবিড়ালির লেজে  ঢেউ ...  একটা সি-বিচের স্বপ্ন  ক্যামেরায়... ভিজুয়াল বার্তালাপ- ...