শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০

সৌমিত্র রায় -এর জন্য গদ্য ২০৮ || প্রভাত চৌধুরী || ধারাবাহিক গদ্য

সৌমিত্র রায় -এর জন্য গদ্য

প্রভাত চৌধুরী



২০৮.

তিনটি সাদা পায়রা লোকনাথ মন্দিরের দিকে উড়ে গেল , আমরা প্রবেশ করলাম ঋত্বিকসদনের ভেতরে।পায়রাদের মুক্তি যেমন আকাশে , আমাদের মুক্তি কবিতাউৎসবে।

ঋত্বিকসদনের মঞ্চে যাঁরা ছিলেন তাঁদের নামগুলি এক ঝলক দেখে নেওয়া যাক। 

সভাপতি : শক্তিনাথ ঝা । বিশেষ আমন্ত্রিত অতিথি : জাহিদ হাসান মাহমুদ। কবিতাপাক্ষিক ৩০০ অনুষ্ঠানের আয়োজক : সন্দীপ বিশ্বাস। তাছাড়া অমিতাভ মৈত্র নাসের হোসেন মুরারি সিংহ গৌরাঙ্গ মিত্র এবং আমি। সঞ্চালক : ঠাকুরদাস চট্টোপাধ্যায়।

মঞ্চের সকলেই দর্শকমণ্ডলীর দিকে পুষ্পবৃষ্টি করলেন। সকালবেলায় ফুলগুলি কিনে এনেছিল স্বপন দত্ত।

শক্তিনাথ ঝা -এর ইচ্ছে অনুসারে মঞ্চে প্রথম গানটি গেয়েছিল এক সদ্যতরুণী ,মল্লিকা আকার। গানটি হল : খাঁচার ভিতর অচিন পাখি । এই পাখির সঙ্গে পায়রা ওড়ানোর কোনো যোগসূত্র আছে কিনা খুঁজে দ্যাখা যেতে পারে।

কবিতাপাক্ষিক ৩০০ - র প্রথম কপিটি কিনলেন সন্দীপ বিশ্বাস, ১০০ টাকার বিনিময়ে।  সন্দীপ বিশ্বাসের হাতে কপিটি তুলে দিয়েছিল মুরারি সিংহ। 


উৎসব কমিটির পক্ষে বক্তব্য বলেছিলেন সন্দীপ বিশ্বাস। কবিতাপক্ষিকের পক্ষ আমি। বাংলাদেশের পক্ষে বক্তব্য বলেছিলেন বিশেষ আমন্ত্রিত অতিথি জাহিদ হাসান মাহমুদ। তিনি রফিকউল্লাহ্ খান সম্পাদিত ' বাংলাদেশের তিন দশকের কবিতা ' সংকলন-গ্রন্থটি আমাকে উপহার দিয়েছিলেন। 

সৈয়দ খালেদ নৌমান সম্পাদিত ' অর্কেস্ট্রা '-র ১৪ বর্ষ ১ম সংখ্যাটি প্রকাশিত হয়েছিল কবিতাপাক্ষিক ৩০০ প্রকাশকে উপলক্ষ করে  ওই সংখ্যাটির আনুষ্ঠানিক প্রকাশ করেছিলেন শক্তিনাথ ঝা।

এরপর কবিতাপাক্ষিক ৩০০ পুরস্কার ও সম্মানপ্রদান।সনাতন দে স্মৃতি পুরস্কার পেলেন নারায়ণ ঘোষ।তাঁর হাতে স্মারক তুলে দিয়েছিলেন শ্যামল রায়। তুষার চট্টোপাধ্যায় স্মারক সম্মান প্রাপক অজিতেশ ভট্টাচার্য -র অনুপস্থিতিতে স্মারক গ্রহণ করেন অশেষ দাস। তুলে দেন স্বপন দত্ত। কমলেশ চক্রবর্তী স্মারক সম্মান গ্রহণ করেন অশেষ দাস, সন্দীপ বিশ্বাসের হাত থেকে।

৬০-এর প্রয়াত কবিদের নামাঙ্কিত কবিতাপাক্ষিক সম্মান পেয়েছিলেন :

অনাময় দত্ত নামাঙ্কিত সম্মান : ইন্দ্রাণী দত্তপান্না , অমিতাভ মৈত্র-র হাত থেকে।

ফাল্গুনী রায় নামাঙ্কিত : জপমালা ঘোষরায় , দিলেন সৈয়দ খালেদ নৌমান।

মঞ্জুষ দাশগুপ্ত নামাঙ্কিত : নমিতা চৌধুরী , দিলেন দীপংকর ঘোষ।

মানিক চক্রবর্তী নামাঙ্কিত : রতন দাস , দিলেন কানিজ ফাতেমা।

সুব্রত চক্রবর্তী নামাঙ্কিত : শৌভিক দে সরকার , দিলেন শুভ্রা সাউ।

এছাড়াও ছিল দুটি পত্রিকার সম্মান প্রাপ্তি।

কৃষ্ণগোপাল মল্লিক নামাঙ্কিত : উৎপলকুমার গুপ্ত 'সময় ' , তুলে দিয়েছিলাম আমি।

অশোক চট্টোপাধ্যায় নামাঙ্কিত : গোপাল দাশ সম্পাদিত ' এখন নিদাঘ ' , রুদ্র কিংশুকের হাত থেকে সম্মান গ্রহণ করেছিলেন দীপ সাউ।

সম্মান প্রাপকেরা তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছিলেন।

গান শুনিয়েছিল জপমালা ঘোষরায় এবং শুভ্রা সাউ।তারপর সম্মান প্রাপক কবিদের কবিতাপাঠ।

এরপর মধ্যাহ্নভোজন।

আগামীকাল পরবর্তী ঘটনাপ্রবাহ।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

আটপৌরে কবিতাগুচ্ছ ~ ২৩/৭ || "আই-যুগ"-এর কবিতা দেবযানী বসু || Atpoure poems 23/7 Debjani Basu

  আটপৌরে কবিতাগুচ্ছ ~ ২৩/৭ || "আই-যুগ"-এর কবিতা দেবযানী বসু || Atpoure poems 23/7 Debjani Basu   আটপৌরে ২৩/৭ ১. গোপালভাঁড় বলেছিল ...