বুধবার, ৬ মে, ২০২০

প্রভাত চৌধুরী || সৌমিত্র রায়-এর জন্য গদ্য || ধারাবাহিক বিভাগ

সৌমিত্র রায়-এর জন্য গদ্য
প্রভাত চৌধুরী

৪.
নয়ের দশক বাংলাকবিতার একটি উল্লেখযোগ্য মাইলস্টোন। কেন মাইলস্টোন বললাম , তার একটা রূপরেখা দেখাতে চাইছি।
মানবসভ্যতার  ইতিহাসে প্রথম উল্লেখযোগ্য ঘটনাটি হল আগুন আবিষ্কার।
দ্বিতীয় ঘটনাটি হল চাকা আবিষ্কার।
পরের ঘটনাটি হল শিল্পবিপ্লব।
আর সর্বশেষ ঘটনাটি হল তথ্য-প্রযুক্তি বিপ্লব।
মনে রাখতে হবে আমি যেরকমভাবে খুব সাবলীল পর পর লিখে দিলাম , আদতে দীর্ঘ সময় সাপেক্ষ ছিল। একদিনে আগুন আবিষ্কার হয়নি। আগুনকে হাতে পেতে বা ব্যবহার করতে বহু বছর ধরে চেষ্টা চালাতে হয়েছিল তখনকার মানুষকে। একটু একটু করে আগুনকে কাছে পেয়েছিল মানুষ। মনে রাখতে তখন কিন্তু সমস্ত শ্রেণির মানুষ আগুনের ব্যবহারের অধিকার পেয়েছিল। তখন একদল মানুষ নিজেদের মধ্যে আগুন-কে অধিকার করে রেখেছিল। সমগ্র মানবসমাজ আগুন ব্যবহারের সম্মতি পেয়েছিল আরো কিছু পরে।
ঠিক এভাবেই চাকা এসেছিল। পাথরের না কাঠের গুঁড়ির গড়ানো থেকে চাকা এসেছিল তা নির্ধারণ করাটা জরুরি নয়। জরুরি হল চাকা আবিষ্কার। চাকা-র আগে মানুষ ঘোড়ার বন্যতা মুছে ফেলতে সমর্থ হয়েছিল।অর্থাৎ ঘোড়াকে বশে এনেছিল।
এসব বলছি কেন ? বলার কারণ হল-- এগুলি অগ্রগতির চিহ্ন। এর প্রভাব পরিলক্ষিত হয়েছিল শিল্লে-সাহিত্যে।
যেদিন আলতামিরা গুহায় মানুষ বাইসন এঁকেছিল , সেদিন মানুষ শিল্পসৃষ্টির উল্লাসে এঁকে ছিল কিনা , তা নির্ধারণ করাটা জরুরি নয়।কিন্তু পরবর্তীকালের মানুষ ওই গুহার বাইসন-কে শিল্পের মর্যাদা প্রদান করেছিল। যাঁরা বা যে গুহামানবরা ওই বাইসন এঁকেছিলেন তাঁর নাম ইত্যাদি মুছে গেছে। কিন্তু বাইসন মুছে যায়নি।
এই হল শিল্পের স্থায়িত্ব। সমকালের গুহামানুষেরা বাইসনের ছবিকে স্বীকৃতি দিয়েছিল কিনা , সেটা বিচার্য নয়।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

সৌমিত্র রায় -এর জন্য গদ্য ২০৪ || প্রভাত চৌধুরী || ধারাবাহিক গদ্য

সৌমিত্র রায় -এর জন্য গদ্য প্রভাত চৌধুরী ২০৪. কবিতাপাক্ষিক ২৯৫ -এ প্রকাশিত হয়েছিল মুরারি সিংহ লিখিত একটি রিপোর্টাজ : বর্ধমান বইমেলায় কবিতাপাক...