Wednesday, May 6, 2020

কিছু বই কিছু কথা । নীলাঞ্জন কুমার রিয়েল টাইম মনিটরিং সিরিজ । সৌমিত্র রায় ।আই সোসাইটি । ত্রিশ টাকা ।

কিছু বই কিছু কথা । নীলাঞ্জন কুমার 

রিয়েল টাইম মনিটরিং সিরিজ । সৌমিত্র রায় ।আই সোসাইটি । ত্রিশ টাকা ।

তরুণ সৎ আনন্দ ও শান্তিবাদী কবি সৌমিত্র রায় যখন থেকে কবিতার সঙ্গে পথ চলা শুরু করেছিল তখন থেকে আমার দৃষ্টি তার দিকে থেকেছে।নতুন ধারা তৈরি করে তার সঙ্গে চলার জন্য যে যোগ্যতা লাগে তা এই কবির ভেতর আছে বলে তিনি ' রিয়েল টাইম মনিটরিং সিরিজ ' -এর কবিতাগুলি লিখে ফেলেছেন । যেখানে রয়েছে শব্দদৃশ্যে কাব্যিক ব্যন্জ্ঞনা, যা প্রকৃতি ও
 মানুষকে একাত্ম  করে তোলে ।
                চমকে উঠি যখন দেখি এই পকেট বুকটিতে তিনি লেখেন: ' কাঠারীর ধারে সাফ হয়ে যাচ্ছে ডাবের দাদ মার্কা ত্বক ; শ্রান্ত ট্রলিওয়ালার টাকে ঠিকরে ছড়িয়ে যাচ্ছে দুপুরের তপ্ত তামাশা ; ঘামের নুন কিছুতেই মিশতে পারছে না ডাব-জল নুনের মাত্রায়....' (আজ দুপুরের তামাশা) কিংবা ' শুকনো কাঠ কুড়িয়ে হেঁটে যাওয়া মেয়েটির শাঁখায় মহাপ্রকৃতির কোন বন্ধন কে জানে; ওর শ্বাস প্রশ্বাসে দুলে উঠছে গাছেদের ছায়া '; ( ' হঠাৎ কবিতা: ছায়াদোল ') পড়ে মনে করা যেতেই পারে এরমধ্যে বহু শ্রম ও জ্ঞানের স্পর্শ লেগে আছে ।
             অতি ক্ষুদ্র বইটির ভেতর রিয়ালিটি ও মনিটরিং এর সঙ্গে সৌমিত্রের স্নেহচ্ছায়া মেশামেশি হয়ে গড়ে উঠেছে এক অনবদ্য ইমেজ, যা পাই:  ' সন্তানের মুখ চেয়ে তারাও পিছন ফিরে তাকাতে চাইছে; মিডিয়ার হাহাকারে ফেসবুক তোলপাড়;  তবুও শান্তি ফিরেছে ঘরে; সান্ধ্য শুভেচ্ছায় ।। শান্তি ।। '('হঠাৎ কবিতা ; সান্ধ্য শুভেচ্ছায় ।
মলাটের পেছনে তার সম্পর্কে যা লেখা হয়েছে: ' সমকালের একজন প্রভাবশালী কবি ও চিন্তাবিদ ' তার মান্যতা তিনি দেখিয়েছেন তাঁর অসংখ্য কাব্যিক কাজকর্মের মধ্যে দিয়ে ।এই কাব্যগ্রন্থের ভেতর চিন্তার অনবদ্য কিছু দৃষ্টান্ত সামনে আসে যা অতীতে তেমন ভাবে গড়ে ওঠেনি জীবনানন্দীয় কেন্দ্রিক যুগের ভেতর দিয়ে ।দেখি তার সতর্ক উচ্চারণ যা শব্দব্রহ্মের কল্যাণে আমাকে ছুটিয়ে ছাড়ে :  'দৌড়বাজ ট্রেন । আর তার সতর্কধ্বনি । /পাখিবাগানের কোকিলকন্ঠে। এক। জনন।আচরণ । অবস্থান । আন্তঃপ্রজাতি সম্পর্ক ' ।'( চ্যাট মোড; ফাঁক; অপূর্ণ) ।
                             সৌমিত্র যে জগৎ নিয়ে বসবাস করে তার মধ্যে আছে সাধনা, কবিতা, দৃষ্টিভঙ্গি, ক্রিয়াকলাপ, সমগ্র দৃষ্টিতে প্রভাব ও সর্বোপরি আনন্দ ও শান্তি ।পশ্চিম  মেদিনীপুর জেলায় দাঁড়িয়ে তার এই কাজ স্বীকৃতি দেওয়ার যোগ্য ।

1 comment:

  1. এই আলোচনার মারফত যে কটা লাইন পড়ার সুযোগ হলো তা পড়ে এই বইটা পড়ার খিদে আরও বেড়ে গেলো। নীলাঞ্জন কাকুকে (নীলাঞ্জন কুমার) অনেক ধন্যবাদ এই বইটা নিয়ে আলোচনাটা করার জন্য আর সৌমিত্র দাকে (সৌমিত্র রায়) অনেক শুভেচ্ছা।

    ReplyDelete

বিশ্বজিৎ || ঘোড়া || কবিতা

  বিশ্বজিৎ ঘোড়া তুমি বরাবর শিক্ষা নিতে ভালবাসো।শিক্ষার ভেতরেও একটা শিক্ষা থাকে।অচেনা গলির ঘ্রাণ... রক্ত আছে মাংস আছে তুমিও বোঝ নদী কীভাবে বা...