Thursday, June 25, 2020

বুলগেরিয়ার নতুন কবিতা || রুদ্র কিংশুক || জর্ডানকা বেলেভার কবিতা

বুলগেরিয়ার নতুন কবিতা
রুদ্র কিংশুক
জর্ডানকা বেলেভার কবিতা


জর্ডানকা  বেলেভা (Yordanka Beleva, 1977)-র জন্ম বুলগেরিয়ার তারভেলে। সুমেনের  কন্টানটিন প্রিস্লাভস্কি ইউনিভার্সিটি থেকে তিনি বুলগেরিয়ান তিনি বুলগেরিয়ান  ফিলোসফি এবং লাইব্রেরী ম্যানেজমেন্ট বিষয়ে ডিগ্রী লাভ করেছেন। লাইব্রেরী এন্ড ইনফরমেশন সায়েন্সে তিনি ডক্টরেট। তার কাব্যগ্রন্থগুলি:
Peignoir and Boats 2002,
The Sea Level of Love 2011,
Her 2012,
 Keys 2015,
Missed Moments 2017,
Keder 2018 ইত‍্যাদি।
 কাব্য গ্রন্থ হার , Her (2012) বেশ কয়েকটি পুরস্কারে পুরস্কৃত। বর্তমানে তিনি সোফিয়ার অধিবাসী।

***
তার আছে বলতে একটা পোশাক বলতে একটা পোশাক
বছরের সব দিনগুলোতে দিনগুলোতে

 ছুটির দিনকে কাজের দিন থেকে আলাদা করতে
 কখনো কখনো সে পরে ব্রুচ

 লিপ ইয়ারে তার বিয়ে
 আর তার পোশাক সংখ্যা বেড়ে হয় দুই

তারপর বছরের প্রতিদিনই
ব্রুচ নিয়ে তার সন্দেহ
***


 তার পোশাক
ভালোবাসার সচিত্র অভিধান

রাতের বেলা সে আসে
তার প্রথম একশো শব্দের খোঁজে
***

 তার তৈরি ডিনার রোমান্টিক
সে যা চায় চায় তার বাইরে আমাদের কিছু দরকার
 আমরা কি রুটি বা মদের খোঁজে যাব

 যাও বার করো যা পরিতক্ত
সে বলে আর ভাবে
 রুটি বা মদের পরিবর্তে
সে একদিন ফিরে আসবে

 ডিনারের জন্য দুটো কাঁচা হৃদপিণ্ড নিয়ে

***

 সে তাকে দেখায়
তার নিঃসঙ্গতার
 নির্বাচিত মুহূর্ত

শেষ এইসবের প্রেমে পড়ে প্রেমে পড়ে
যতক্ষণ না তারা হয়ে ওঠে তার নিজস্ব
***

সে নতুন সেহারজাদে
 হাজার এক নীরবতার

 প্রতিরাতে সে বিছানা সরায়
 তারই নীরবতার দিকে
***

তার দুঃখ একটা বাড়ির মতো
পুরনো উত্তরাধিকার
সমভাবে বন্টিত
অনেকগুলো প্রেমেপড়ার ভেতর

প্রত্যেক হেমন্তে  বাড়িটা হয়ে ওঠে
একজন মানুষ দীর্ঘতর

এলিভেটরের ভেতরে মারা পড়ে বাড়িওয়ালি
 দুটো  ফ্লোরের ভেতরে আটকানো চোখের জলে

No comments:

Post a Comment

পূরবী- ৩৫ || অভিজিৎ চৌধুরী || ধারাবাহিক উপন্যাস

পূরবী~৩৫ অভিজিৎ চৌধুরী দিদিদের বাড়ির রাস্তার নাম ছিল চার্চ রোড।ছিমছাম পাড়াটা।তীর্থের সেই দিদির নাম ছিল ইলা। কোন কোন দিন একটু দূরের মাঠে ক্রি...