Wednesday, June 24, 2020

সৌমিত্র রায়- এর জন্য গদ্য ৫১ || প্রভাত চৌধুরী || ধারাবাহিক গদ্য

সৌমিত্র রায় এর জন্য গদ্য
প্রভাত চৌধুরী

৫১.
কবিতাপাক্ষিক-এর ১০০ সংখ্যার ফ্রন্ট কভারে ছাপা হয়েছিল :
মানুষ / যতদিন পর্যন্ত / স্বপ্ন দেখবে / ততদিন / কবিতাও থাকবে
বেশ বড়ো টাইপে। এখন এটাই আমাদের ক্যাচলাইন।তো , এখন বলার কথা কবিতা উৎসবের কথা। ২৮-২৯ জুন ,১৯৯৭ -এর কবিতা উৎসবের কথা।
কবিতাপাক্ষিক ১০০ প্রকাশ উপলক্ষে আয়োজিত কবিতা উৎসবের কথা।
একটা কবিতা উৎসবকে তিনটি ভিন্ন বাক্যে ভাগ করে বললাম কেন ?
এই কেন -র কোনো উত্তর নেই।কেন-র উত্তর দেবার জন্য কোনো লেখা লিখি না। লেখা থেকে যাতে একশোটা প্রশ্নচিহ্ন উঠে আসে সেকারণেই লিখি। সেই একশোটি প্রশ্নের একশোটি উত্তরও উঠে আসবে নিশ্চিত হবার পর লিখি।
বলে রাখা দায়িত্ব এবং কর্তব্য হল ১০১ তম সংখ্যা থেকে এডিটোরিয়াল টিম পুনর্গঠিত হয়েছিল। প্রধান সম্পাদকের দায়িত্বে এসেছিল নাসের হোসেন।সংযুক্ত সম্পাদক হয়েছিল শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রজতেন্দ্র মুখোপাধ্যায়।
নাসের হোসেন তার এডিটোরিয়াল-এ লিখেছিল :
মনে রাখতে হবে কবিতাপাক্ষিক-এর মূল আদর্শ দুটি :
১. কবিতার জন্য পরিচ্ছন্ন এবং নিভৃত একটু স্থান
     করে দেওয়া
২. কবিতার নতুন মানচিত্র নির্মাণ।

  এবার পশ্চিমবঙ্গ বাংলা আকাদেমি সভাঘরে প্রবেশ করা যেতে পারে। বা সরাসরি অনুষ্ঠান-পর্বে আসা যেতে পারে।
২৮ জুন , ১৯৯৭ দুপুর ১ টায় শুরু হল কবিতা উৎসব।সূচনায় উৎসবের আহ্বায়ক সৈয়দ কওসর জামাল প্রারম্ভিক কথা ।এরপর কবিতাপাক্ষিক-এর প্রথম সুহৃদ সনাতন দে-র প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করে নাসের হোসেন।
উৎসবের উদ্বোধন করেন কবি অরুণ মিত্র পুষ্পবৃষ্টি করে । সমস্ত কবিতাপ্রেমীদের হাতে তুলে দেওয়া হয় লালগোলাপ।
কবিতাপাক্ষিক ১০০ তম সংখ্যাটির আনুষ্ঠানিক প্রকাশ করেন সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়।
সম্মিলিত সূচি গ্রন্থটির আনুষ্ঠানিক প্রকাশ করেছিলেন শঙ্খ ঘোষ , একথা গতকালই জানিয়ে ছিলাম। আবার জানালাম। নজিরবিহীন এই কাজটির কথা বারবার বললেও ফুরিয়ে যাবে না।
প্রধান অতিথি ছিলেন শ্যামল গঙ্গোপাধ্যায় ।
সভাপতি : ভূমেন্দ্র গুহ।
উদ্বোধনের পর  অরুণ মিত্র , সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় , শ্যামল গঙ্গোপাধ্যায় এবং ভূমেন্দ্র গুহ তাঁদের বক্তব্য বলেন। এরপর আমি আমার কথা বলেছিলাম।
এরপর শুরু হল সেমিনার। বিষয় : বাংলাকবিতা চর্চায় সমান্তরাল পত্রপত্রিকার অবদান ।
অংশগ্রহণ করেছিলেন : পবিত্র মুখোপাধ্যায় , প্রমোদ বসু , রবিশংকর বল , অজিতেশ ভট্টাচার্য , দেবীপ্রসাদ বন্দ্যোপাধ্যায় , প্রভাত চৌধুরী , সমীরণ মজুমদার এবং সন্দীপ দত্ত। বক্তব্যের পর ছিল প্রশ্নোত্তর পর্ব। এই পর্বের সঞ্চালক ছিলেন আলোক সরকার।

বিরতির পর সন্ধে ৬ টায় শুরু হয়েছিল দ্বিতীয় পর্ব।
সেই পর্বের কথা আগামীকাল।

No comments:

Post a Comment

বিষ্ময়কর চিহ্নের পিঠে... || আমিনুল ইসলাম || কবিতা

বিষ্ময়কর চিহ্নের পিঠে...  আমিনুল ইসলাম  ফ্লাইং কিস! মানেই- কাঠবিড়ালির লেজে  ঢেউ ...  একটা সি-বিচের স্বপ্ন  ক্যামেরায়... ভিজুয়াল বার্তালাপ- ...