রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সৌমিত্র রায় -এর জন্য গদ্য ১৪৬ || প্রভাত চৌধুরী || ধারাবাহিক বিভাগ

 সৌমিত্র রায় -এর জন্য গদ্য

প্রভাত চৌধুরী




১৪৬.

দেখতে দেখতে কলকাতায় কেন্দ্রীয় উৎসবের দিকে এগিয়ে চলেছি। মনে রাখতে হবে তখন মোবাইল হাতে আসেনি আমাদের। মূলত ল্যান্ডফোন এবং চিঠিপত্র-র ওপর নির্ভর করতে হত সকলকে। আমিও এই সকল থেকে আলাদা ছিলাম না। আমাকে এই কেন্দ্রীয় উৎসবের জন্য নির্ভর করতে হয়েছিল 

2455 6325 এই নম্বরটির ওপর। আর এই নম্বরটি চালু রাখার জন্য ল্যান্সডাউনের ক্যালকাটা  টেলিফোনের আঞ্চলিক অফিসে যে কতবার যূথিকাকে ধরনা দিতে হয়েছে , সেটাও মনে রাখার জন্য লিখে রাখলাম।

এবার কীর্ণাহার-যাত্রা।

১৩ সেপ্টেম্বর ২০০৩ শনিবার , দুপুর ২টোয় ছিল অনুষ্ঠান। সকালে গণদেবতাতে। বোলপুর। তখন বাসস্ট্যান্ড এতটা দূরে সরে যায়নি। বোলপুর থেকে বাসে কীর্ণাহার।

আয়োজক : রহিম রাজা । কবিতা বারোমাস ।

অনুষ্ঠান-স্থল : টাউন লাইব্রেরি সভাঘর।

তখন শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায় বোলপুরে। থাকত অদ্বৈত লজে। কর্মস্থল সিয়েন। কাজেই সেসময় বোলপুরের সঙ্গে যোগাযোগ খুবই নিবিড় ছিল। তাছাড়া রুদ্র কিংশুক তো ছিলই।

কীর্ণাহারের টাউন লাইব্রেরি তখন বেশ জমজমাট। তখনো মানুষজন প্রিয় বই-কে প্রিয় সঙ্গী মনে করত। আর কীর্ণাহার এবং আশেপাশের অঞ্চলের সমস্ত গুণীজন সেই উৎসব-কে নিজেদের উৎসব মনে করেছিলেন। বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব অরুণ রায়-এর পূর্ণ সহযোগিতার কথা এখনো মনে আছে।মনে আছে অসীম বন্দ্যোপাধ্যায় প্রভাকর বন্দ্যোপাধ্যায় নাসিম এ আলম এবং আমিরুল কাজি-র সমর্থনের কথা।

আর আমাদের আত্মজনেরা , অর্থাৎ রহিম রাজা বিষ্ণু চক্রবর্তী শান্তনু রায়চৌধুরী নীলাদ্রি ভট্টাচার্য  সন্তোষ দাস-রা তো ছিলই।আমিনুল ইসলাম তখন সম্ভবত প্রবাসে , কাজে এবং কর্মে। 

রাত্রিবাস ছিল বোলপুরে। তেমনই নির্ঘণ্ট ।

কীর্ণাহার থেকে বোলপুর। মিলনতীর্থ অনুষ্ঠান ভবনেই রাত্রিবাস।

এই অনুষ্ঠানের আয়োজক : প্রবীর দাস মলয় ঘোষ রুদ্র কিংশুক বা আজকের কবিতা ইলোরা দ্য পেরি-ফেরাল উইন্ডো।

আর শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়ের সক্রিয়তা এই অনুষ্ঠান-কে সর্বাঙ্গসুন্দর করেছিল।

কবিতা এবং রবীন্দ্রগানে মুখরিত ছিল এই উৎসব।এই অনুষ্ঠান বা উৎসব শান্তিনিকেতন বা বিশ্বভারতীর সঙ্গে কবিতাপাক্ষিকের ঘনিষ্টতা অনেকটাই বৃদ্ধি পেয়েছিল , এটা বেশ মনে আছে। প্রবীর দাস তখন অনেকটাই অ্যাকটিভ ছিল কপা-র বিষয়ে। এমনকী একবার ওর বাড়ির ছাদে বেশ বড়ো অনুষ্ঠান করেছিলাম আমরা। সেই অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট শিল্পী সনজিতা খাতুন উপস্থিত ছিলেন। এমনকী গানও শুনিয়েছিলেন।

পরের কথা পরের দিন।সবই অপর -এর প্রাধান্যকথা।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নিউ নরমাল আই ফেস্ট ২০২০ || বিশেষ প্রতিবেদন

দারুণভাবে সফল হল "নিউ নরমাল আই-ফেস্ট ২০২০ " বিস্তারিত প্রতিবেদন পড়তে দয়া করে আজ রাত ৯টার পর রিফ্রেশ করুন... বিশেষ প্রতিবেদন, দৈনিক...