বুধবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সৌমিত্র রায় -এর জন্য গদ্য ১২৮ || প্রভাত চৌধুরী || ধারাবাহিক গদ্য

সৌমিত্র রায় -এর জন্য গদ্য
প্রভাত চৌধুরী

১২৮.
কবিতাপাক্ষিক২৪৬ -এর ব্যাক কভারে একটি বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয়েছিল।প্রকাশকাল :২২ ফেব্রুয়ারি ২০০৩। বিজ্ঞাপনটি পড়ুন :
                    কবিতাপাক্ষিক-এর
                     ১০ম বর্ষ পূর্তি উপলক্ষে
                    ৯ মে-- ২৩ মে ২০০৩
       কবিপক্ষে ১৫ দিন কলকাতার ১৫টি অঞ্চলে
                   কবিতার কিয়স্ক
এই কিয়স্ক-এ কবিতাপাক্ষিক প্রকাশনার বইসহ
অন্যান্য কবিতার বই-ও ১০ পার্শেন্ট কমিশনে পাবেন।
সম্ভাব্য অঞ্চল : রবীন্দ্রসদন রাসবিহারী যাদবপুর বেহালাচৌরাস্তা টালিগঞ্জ মেট্রো আলিপুর ( ভবানীভবন) ধর্মতলা ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া মোড় শিয়ালদহ স্টেশন শ্যামবাজার দমদমমেট্রো সিঁথি মানিকতলা বিবাদী বাগ ( বেঙ্গল চেম্বার অফ কমার্স এর সামনে )
   কোনদিন কোন পয়েন্ট তা পরে  জানানো হবে।

এই বিজ্ঞাপন থেকে একটা লক্ষ্য প্রমাণিত হচ্ছে যে আমরা  কবিতা নিয়ে ঘরে বসে গুজ্গুজ্ ফুস ফুস্ করতে চাইনি। পরনিন্দা বা পরচর্চায় আবৃত থাকতে চাইনি। আর মুখের সাহায্যে জগৎ-কে জয় করতে চাইনি।
কলকাতার এই কর্মসূচির পাশাপাশি ছিল কবিতাপাক্ষিক-এর ১০ বছর পূর্তি উৎসব করেছিলাম মোট ৫০ টি প্রান্তে বা বিন্দুতে। সেই ৫০ টি প্রান্তেও ঘাড়ে করে বহে নিয়ে গিয়েছিলাম এই কিয়স্কটি।
মাননীয় পাঠক খোঁজ নিয়ে দেখুন তো কোনো কবিতার পত্রিকা বা প্রতিষ্ঠান অনুরূপ কোনো কর্মসূচি পালন করেছে কিনা।
মনে রাখবেন এর বিনিময়ে ব্যক্তিগতভাবে আমরা কিছুই চাইনি। চেয়েছিলাম কবিতাকে বিভিন্ন প্রান্তে পৌঁছে দিতে।
এই কিয়স্ক-চিন্তা মাথায় এসেছিল একটা ব্যাঙ্কের কিয়স্ক থেকে। ওরা সেই কিয়স্ক থেকে তাদের প্রচার- ধর্মী কাজকর্ম করত। আমার এই সিস্টেমটা মনে ধরেছিল। পুরোটাই প্রায় ফোল্ডিং সিস্টেম। আমি চেয়েছিলাম যেখানেই যাবো , সঙ্গে করে এই কিয়স্কটি নিয়ে যাবো। বা নিয়ে নিয়ে ঘুরবো।
কিনতে গেলাম চাঁদনিতে। কেনা হল ভুল।হালকার পরিবর্তে বেশ ভারী একটা কিয়স্ক লাট-বোল্টু সহ কেনা হল। কিন্তু সেই ভারীটা কখনোই তেমন ভারী মনে হয়নি।
২ -- ৪ এপ্রিল ২০০৩।শুশুনিয়া , বাঁকুড়ায় বারুণী উৎসব। রাতের বাসে কিয়স্ক সহ আমি একা। নামিয়ে দিল বাঁকুড়ায়। রাত তিনটে নাগাদ। কর্তব্যরত পুলিশ কিংবা নাইটগার্ডের সহযোগিতায় রিকসা পাওয়া গেল। প্রফেসর কলোনি। গুরুদাসের বাড়ির দরজায়  কয়েকবার ডাকাডাকি করলাম। সাড়া পেলাম না। পাশের বাড়ির গৃহপালিত জাতের কুকুরের আওয়াজের জন্য চুপচাপ বসেছিলাম কিয়স্কের ওপর।
সকাল হবার পর গুরুদাসের  কাছে বকুনি খেলাম। গাড়ি ছিল। সেই গাড়িতে কিয়স্ক সহ আমরা।শুশুনিয়া।
মেলা উদ্বোধক বাঁকুড়ার ডি এম জি এ খান।আর বাউল মঞ্চের উদ্বোধক আমি।
যা অল্প কিছু বই নিয়ে গিয়েছিলাম এক বেলাতেই সব শেষ।
একটা পরিকল্পনার সার্থক রূপায়ণ।
ক-দিন পর ছিল ছান্দারে গাজন উৎসব। ওখানেও পৌঁছে গিয়েছিলাম কিয়স্ক সহ।
কাজেই কবিতাপাক্ষিক কিয়স্ক মিশে গিয়েছিল আমার যাত্রাপথের সঙ্গে।
আগামীকাল আরো কিয়স্ক-কথা।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

Student Registration (Online)

Trainee REGISTRATION (ONLINE)

                                                                                    👇           👉             Click here for registration...