রবিবার, ১১ অক্টোবর, ২০২০

কিছু বই কিছু কথা। নীলাঞ্জন কুমার বৈকুন্ঠপুর হল্ট নয়, ইস্টিশান । অমিত কাশ্যপ

কিছু বই কিছু কথা। নীলাঞ্জন কুমার 





বৈকুন্ঠপুর হল্ট নয়,  ইস্টিশান । অমিত কাশ্যপ । সারঙ্গ প্রকাশনী । চল্লিশ টাকা ।



সিরিজ কবিতা লেখা কি যে কঠিন,  সে যিনি লেখেন তিনি বোঝেন । সিরিজের ভেতরে যে বিষয় থাকে তাকে ফোটানো ও কাব্যিক ব্যন্ঞ্জনা তুলে ধরা একজন জাত কবির কাছে আশা করা যায় । কবি অমিত কাশ্যপের তেরো নম্বর কাব্যগ্রন্থ ' বৈকুন্ঠপুর হল্ট নয়,  ইস্টিশান ' - এর আঠাশটি শিরোনামহীন  কবিতার মধ্যে   কবি বৈকুন্ঠপুরের ভেতর দিয়ে তুলে ধরতে চেয়েছেন গ্রাম বাংলার মাটি,  মানুষের মন,  জীবনযাত্রা,  পরিবেশ । যা ইট কাঠ বালি সিমেন্ট লোহালক্কড়ের শহরের থেকে অন্য কোথাও অন্য কোনখানে টেনে নিয়ে যায় । তাই তিনি লেখেন:  ' গৃহস্থালির পাশে বিকেলের রোদ রোদের পাশে আচার/  বিকেল একটু একটু করে খামচে ধরছে ', ' ধারাপাত উড়ে চলে,  মিঞার বাচ্চা পয়সা গোনে/  বেন্ঞ্চে বেন্ঞ্চে চা মুড়ি ঘুগনি,  আগামী ভারতবর্ষ ' , ' হেমন্তের বিকেলকে নিয়ে যখন আসতেন বাবা/  তখন আরো নীরব,  ক্রমশ শহর ঘেঁষা জনআরণ্যক ।' 

                   বৈকুন্ঠপুরের প্রাত্যহিক রোজনামচা কবি কি অপূর্ব ভাবে ব্যক্ত করেছেন , যখন পাই এলাকার সুখ দুঃখ,  চাহিদার অসামান্য রূপ তাঁর কবিতায় : ' জল চাই না,  শস্য চাই / মা চাই না,  মাটি চাই/  জল উৎসব থেকে গোটা গ্রাম লজ্জাবতী মা, মাটি শস্যের মুখে ,' সোজা সোনালী জীবন হেসে গড়িয়ে পড়ছে জান্হবীতে/  পুণ্যতোয়া জাহ্নবী ছুঁয়ে ছুঁয়ে মালিন্য খুঁজছে ঠারুরাণিঘাট '

                বলা যায় এ কাব্যগ্রন্থ এক সফল প্রয়াস কবি অমিত কাশ্যপের । যারা গ্রাম থেকে শহরে বসবাস করছেন তাদের নস্টালজিয়া গ্রাস করবেই । এখানেই কবির জিৎ । মুক্তিরাম মাইতি বৈকুন্ঠপুরের হৃদয় চিনে যেন এঁকেছেন প্রচ্ছদ ।খুব সাধারণ তবু অসাধারণ এ প্রচ্ছদের জন্য তিনি ধন্যবাদার্হ ।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

নিউ নরমাল আই ফেস্ট ২০২০ || বিশেষ প্রতিবেদন

দারুণভাবে সফল হল "নিউ নরমাল আই-ফেস্ট ২০২০ " বিস্তারিত প্রতিবেদন পড়তে দয়া করে আজ রাত ৯টার পর রিফ্রেশ করুন... বিশেষ প্রতিবেদন, দৈনিক...