রবিবার, ২২ নভেম্বর, ২০২০

কিছু বই কিছু কথা ২০০ || নীলাঞ্জন কুমার || অতিকথনের রাত্রি || সুমিত বন্দ্যোপাধ্যায়

 কিছু বই কিছু কথা ২০০ ।  নীলাঞ্জন কুমার




অতিকথনের রাত্রি । সুমিত বন্দ্যোপাধ্যায়
। কবিকন্ঠ প্রকাশনী । কুড়ি টাকা ।

' পুরোনো চিঠির মতো, বিক্ষত/  প্রাণ এক,  জেগে আছি দূরে/  নির্জনে ' ( ' খড় ') , ' তোমার কথার মাঝে আশ্চর্য পাখি/  চোখের মাঝে কল্পতরু পাপ ' (  মেঘবদল  ') -এর মতো উজ্জ্বল পংক্তি যখন একজন তরুণ কবি লিখে চলেন তাঁর কাব্যগ্রন্থে , তখন তাকে বড় আপন বলে মনে হয় । সেই অবস্থা দাঁড়িয়েছে উক্ত পংক্তিগুলির কবি সুমিত বন্দ্যোপাধ্যায়ের দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ' অতিকথনের রাত্রি ' নামে কাব্যগ্রন্থটিকে পড়ে , যা প্রকাশ হয়েছিল  বারো বছর আগে । আসল কথা হলো,  কবিতা বুঝতে গেলে যে জাত প্রয়োজন ,  লিখতে গেলে যে অসাধারণত্ব দরকার তা এই কবির ভেতরে বহমান বলতেই হয় । তাই, ' ভেসে যাক প্রেমিকের মতো, সন্তানের মতো/  অনন্তকাল । ' ( কাঠজন্ম ') , ' তোমার আমার মাঝে/  বয়ে চলে মিসিসিপি,  বয়ে চলে মার্চিং সং ' ( 'এষা ') -র প্রেমোচ্চারণ মগ্ন হয়ে পড়লে সচেতন পাঠককে সমৃদ্ধ করবেই ।
                  সবচেয়ে বড় কথা কবির কোন আদিখ্যেতা নেই উচ্চারণে । জাগলারি আর ওপরচালাকিরও দেখা নেই । যেন ভেতরে থেকে অবিরাম গড়ে উঠেছে স্বাভাবিক শ্বাস প্রশ্বাসের মতো । তাই কত স্বাভাবিকভাবেই তিনি দুরূহ শব্দ অবলীলায় লেখেন:' বিকেল বেলায় এ তরণী/  ভাসতে পারে দু-চার আনায়/  আগলে রাখা জিন্দেগানি । ' ( ' কৃষ্ণকলি ' ) তন্নিষ্ঠ
করে ।
      সমালোচনা মানে কেবলমাত্র ভুল ধরা ও তিরস্কার করা যারা মনে করেন তা যে ভুল, তা এই কাব্যগ্রন্থের মতো কাব্যগ্রন্থ হলে বুঝিয়ে দিতে অসুবিধে হয় না । কবি প্রশংসাযোগ্য  তখনই হন যদি খুঁজে পাওয়া যায়:
' করুণা ও নিয়তির মাঝে/  একা একা বেঁচে থাকে বৃদ্ধ শামুক ।' ( ' নষ্টচিত্র ' ) , ' দেখো তোমার স্তন খুবলে খাচ্ছে/  হিসাবি সময় ' ( ' নগরিয়া ') র মতো পংক্তি । প্রচ্ছদ তাকিয়ে থাকার মতো । কবিতার বইয়ের প্রচ্ছদ কিরকম করা যেতে পারে তার শিক্ষা এর থেকে নেওয়া যেতে পারে ।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

শব্দব্রাউজ ৩০ || নীলাঞ্জন কুমার || "আই-যুগ"-এর কবিতা

  শব্দব্রাউজ  ৩০  ||  নীলাঞ্জন কুমার বিপাশা আবাসন তেঘরিয়া ২৯।১১।২০২০ সকাল ৮-৩২ মিনিট । পান্নালাল ভট্টাচার্যের কথা খুব মনে পড়ছে । তাঁর শ্যামা...