শনিবার, ৭ নভেম্বর, ২০২০

কিছু বই কিছু কথা || নীলাঞ্জন কুমার || চাঁদের বুড়ি || পঙ্কজ মন্ডল || নীলাক্ষর প্রকাশনী

 কিছু বই কিছু কথা।  নীলাঞ্জন কুমার




চাঁদের বুড়ি । পঙ্কজ মন্ডল । নীলাক্ষর প্রকাশনী
। চল্লিশ টাকা ।

কবি পঙ্কজ মন্ডলের বহু বহু কবিতা পড়ে ফেলার জন্য এ কবির ভাষা কোন ভাবে  আমার কাছে অপরিচিত নয় । আগেও বলেছি তাঁর কবিতা একবার পড়ার পর আবার কিছুদিন পরে পুণঃপাঠ করলে তবে তাঁকে ধরা সহজ হবে । নাহলে যে যত বড়ই সমালোচক হন না কেন তাঁকে প্রকৃত মূল্যায়ন করা অসম্ভব । পঙ্কজের প্রতিটি কবিতা গঠনগত দিক দিয়ে একইরকম,  কিন্তু শুধু গঠন প্রক্রিয়ার  দিকে তাকিয়ে তাঁকে  বিচার করি তা ভুল হবে । তাঁর কবিতার মূল চাবিকাঠি লুকিয়ে আছে ব্যন্ঞ্জনার ভেতরে,  যার জন্য গভীর গভীরতর মগ্নতা প্রয়োজন । তাই: ' খর রোদ্দুরে সূক্ষ্ম শরীর কষ্টকে মারো পিষে/  ক্লান্ত ডানায় মেঘ ভাঙা চাঁদ দুদন্ড কথা বলো । ' ( ' ভষ্মাহত ') আপাত দিক দিয়ে  উপেক্ষা করার মতো পংক্তি মনে হলেও মূল সত্য লুকিয়ে এখানে ই। যা তাঁর কাব্যগ্রন্থ ' চাঁদের বুড়ি ' র ভেতর লুকিয়ে আছে ।
              এই কবিকে বুঝতে গেলে বহুপথ হাঁটতে হবে,  তারপর যা পাওয়া যাবে আজীবন ধরে রাখতে ইচ্ছে হবে । সে কারণে তিনি সাধারণের কবি হয়ে উঠবেন না অবশ্যই,  তবে প্রকৃত সমঝদার, কবি আখ্যা দেবেন : ' ভাঙা লেনদেন গুলি দেয়না যখন কোন তাপ/  ভিতরের তারগুলি পুড়ে পুড়ে নির্বাক সন্ন্যাসী । ' ( ' বিচ্ছেদ ') , ' মুগ্ধ সাদা মুখ আসে চোখে নিয়ে গুপ্ত প্রাণ মন্ত্র/  বুক ভরে নিই স্পর্শ,  ফুলে ফুলে ছড়াই পরাগ ।' (' নবজন্ম ') - এর পংক্তিগুলির গুণে বলতেই পারি ।
              কবির উৎকট অভ্যাস কবিতায় অযাচিত তৎসম শব্দের প্রয়োগ । সে কারণে কিছু কিছু ক্ষেত্রে তাঁর কবিতা ক্লান্তি আনে । তা শুধরে না নিলে কবি সঠিক মর্যাদা থেকে বন্ঞ্চিত হবেন । কবিকৃত প্রচ্ছদ দাগ কাটে না । ব্যাকগ্রাউন্ড বড় ফাঁকা ফাঁকা ।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

শিক্ষা-জীবন || চার্লস মিথুন || অন্যান্য কবিতা

শিক্ষা-জীবন চার্লস মিথুন জগৎ মাঝে জন্ম নিয়েই, শিক্ষা জীবন শুরু। শেখার বয়স শেষ হবে না, হও না যতই বড়॥ মায়ের কাছে শিখবে প্রথম, প্রাণের কথা বলা।...