Saturday, June 20, 2020

সবাই মিলে সিনেমা হলে~ ১ || কান্তিরঞ্জন দে || প্রতি শনিবার

সবাই মিলে , সিনেমা হলে
কান্তিরঞ্জন দে


       আমার সিনেমা দেখার শুরু , মায়ের আঙুল ধরে । আর , চোখে আঙুল দিয়ে সিনেমা দেখতে  শিখিয়েছেন , সত্যজিৎ রায় ।
 
     তখন ক্লাস সেভেন । নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন সেন্ট্রাল হলের পর্দায় --- পথের পাচালী । আম আঁটির ভেঁপু-র বালক অপুর সঙ্গে আমিও কখন যেন সিনেমার পর্দায় ঢুকে পড়লাম । আজও সেই আলো-ছায়ার নেপথ্যে ঘুরছি ।

       ছোটবেলায় সিনেমা দেখা ছিল একটা উৎসব । ৭--১০ দিন আগে প্ল্যান ছকা হত। বাড়িতে নতুন বর এলে আত্মীয়স্বজনকে সিনেমা দেখানো তার  বাধ্যতামূলক ছিল ।

       দল বেঁধে সিনেমায় যাবার গ্রুপ লিডার ছিলেন মা । মায়ের কোলে চেপে অরুণা-পূরবী-ছবিঘর-বীণা-র ব্যালকনিতে কত যে ছবি দেখেছি । সে সব আজ কিছু মনে নেই । বাবা ছিলেন রূপবাণী-অরুণা-ভারতী চেইনের  আংশিক  শেয়ারহোল্ডার । সিনেমা দেখতে মায়ের পয়সা লাগত না । বাবা অবশ্য জীবনে একটাও সিনেমা দেখেন নি । কি আশ্চর্য !!!

     উত্তর কলকাতা ছেড়ে কোন্নগরে আসবার পর মায়ের সঙ্গে  পাঁচবছর বয়সে দেখি ---- পরমপুরুষ  শ্রীরামকৃষ্ণ । ছবিটা কিছুই বুঝি নি । পর্দায় আবির্ভূতা মা কালী শুধু আকৃষ্ট করেছিলেন । সালংকারা ,  মুক্তকেশী , ঘোর কৃষ্ণবর্ণা  নগ্নিকা চোখে সিনেমার মায়াকাজল এঁকে দিয়েছিলেন ।

      মায়ের সঙ্গে সবসময় যে ঠাকুর-দেবতার ছবিই দেখেছি , ----- তা নয় । বাংলা-হিন্দি -ইংরিজি অনেক ক্ল্যাসিক ছবিও দেখেছি ।

       সিনেমা হলটির নাম ছিল ----- চলচ্চিত্রম । বেড়ার দেওয়াল । টিনের চালা ।

      চলচ্চিত্র অর্থে আমরা যে " সিনেমা " শব্দটি ব্যবহার করি , অনেক বড় হয়ে জেনেছি , সেটি ভুল । কেন ?

        সে প্রসঙ্গ , পরের সপ্তাহে ।

No comments:

Post a Comment

উনত্রিশ পয়েন্ট ফাইভ - ৪৪ || সোমনাথ বেনিয়া || কবিতা

 কবিতা উনত্রিশ পয়েন্ট ফাইভ - ৪৪ / সোমনাথ বেনিয়া জাগতিক সব কাজে গন্ধ আছে, জানে সময়, জানে মহাকাল গতিরেখা বরাবর ছুটলে একসময় হাতের মুঠোয় মথিত শৈ...