Friday, August 21, 2020

গ্রিসের নতুন কবিতা || রুদ্র কিংশুক || ভাসিলিস আমানাটিডিস-এর কবিতা

গ্রিসের নতুন কবিতা 
রুদ্র কিংশুক 
ভাসিলিস আমানাটিডিস-এর কবিতা


ভাসিলিস আমানাটিডিস (Vassilis Amanatidis, 1970)-এর জন্ম উত্তর-গ্রিসের এদেসা শহরে। তিনি বড়ো হয়ে উঠেছেন থেসালোনিকি শহরে যেখানে তিনি বর্তমানে থাকেন। অ্যারিস্টোটল ইউনিভার্সিটি অব থেসালোনিকি থেকে তিনি পাঠ নিয়েছেন নিয়েছেন ইতিহাস এবং পুরাতত্ত্ব বিষয়ে।  তিনি থেসালোনিকি সেন্টার অফ কন্তেম্পরারি আর্ট আর্ট আর্ট  প্রতিষ্ঠানে আর্ট কিউরেটর হিসেবে কাজ করেছেন। তিনি একজন দক্ষ অনুবাদক । ই ই কামিংস, জয়েস ক‍্যারল  ওটস প্রমূখ প্রখ্যাত লেখকদের রচনা তিনি অনুবাদ করেছেন গ্রিক ভাষায়। এ পর্যন্ত তাঁর প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থের সংখ্যা সাত। তাঁর কবিতা এবং ছোটগল্প বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে এবং আমেরিকা, কানাডা, ইংল্যান্ড, সুইডেন, ইতালি এবং রাশিয়ার বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা ও কোন সংকলনে প্রকাশিত প্রকাশিত হয়েছে।

১.
তারা নতুন মৌ-কুঠুরি বানাচ্ছে

 কেউ না লক্ষ্য করে পারবে না না পারবে না না না লক্ষ্য করে পারবে না না পারবে না না না
 যে যখন মৌমাছিরা পোড়ে
 তারা হয়ে ওঠে নরম লাল ভেলভেটের মত
 ভঙ্গুর যেন নীল চোখের খোলা তারা
 আর তারপর তারা মরে

 আগুন আসার আগে
যা গলিয়ে দেয় মৌ-কুঠুরি
এবং মৌচাকের শেষ স্বপ্নগুলির উত্তোলন। প্রকৃতপক্ষে মুহূর্তের জন্য, বাতাসে
 মৃদু আলোড়ন
যখন তারা বাষ্পীভূত হয়।
 আর যেহেতু মৌমাছিদের স্বপ্নে
 ফুলের সৌরভ
বহুক্ষণ পরেও
পরবর্তী চাকের বৃথা চেষ্টা
 বাগানের কোনো
উঁচু স্থানে।

২.
অসম্ভব কবিতা

 একটা পাখি আছে যে
রাতের বেলা গাছের ওপর বসে ঘুমাবে না না বসে ঘুমাবে না না বসে ঘুমাবে না গাছের ওপর বসে ঘুমাবে না না বসে ঘুমাবে না না বসে ঘুমাবে না
 ডানা ভাঁজকরা, নিশ্চল
সে ঘুমায় শূন্যে

কেউ তাকে ধরে রাখে না উচ্চতায়

 দিনের বেলার উড়ান তাকে ক্লান্ত করে
সে ডানা ঝাপটায় কারণ
পায়ের অভাব, অপরিণত
কীভাবে সে জানবে অন্যেরা মাটি স্পর্শ করে
 এভাবেই সে ডানা ঝাপটায়

 কিন্তু রাতের বেলা শান্ত হয়ে
সে ঘুমায় লম্বভাবে
একটা ছোট্ট সোজা কফিন
মাটির স্পর্শ না করেই তুমি এমনকি বলতে পারো
 সে শুয়ে আছে

দিনের বেলা সে আবার উড়ান দেয়
ভাসিলিস আমানাটিডিস (Vassilis Amanatidis, 1970)-এর জন্ম উত্তর-গ্রিসের এদেসা শহরে। তিনি বড়ো হয়ে উঠেছেন থেসালোনিকি শহরে যেখানে তিনি বর্তমানে থাকেন। অ্যারিস্টোটল ইউনিভার্সিটি অব থেসালোনিকি থেকে তিনি পাঠ নিয়েছেন নিয়েছেন ইতিহাস এবং পুরাতত্ত্ব বিষয়ে।  তিনি থেসালোনিকি সেন্টার অফ কন্তেম্পরারি আর্ট আর্ট আর্ট  প্রতিষ্ঠানে আর্ট কিউরেটর হিসেবে কাজ করেছেন। তিনি একজন দক্ষ অনুবাদক । ই ই কামিংস, জয়েস ক‍্যারল  ওটস প্রমূখ প্রখ্যাত লেখকদের রচনা তিনি অনুবাদ করেছেন গ্রিক ভাষায়। এ পর্যন্ত তাঁর প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থের সংখ্যা সাত। তাঁর কবিতা এবং ছোটগল্প বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে এবং আমেরিকা, কানাডা, ইংল্যান্ড, সুইডেন, ইতালি এবং রাশিয়ার বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা ও কোন সংকলনে প্রকাশিত প্রকাশিত হয়েছে।

১.
তারা নতুন মৌ-কুঠুরি বানাচ্ছে

 কেউ না লক্ষ্য করে পারবে না না পারবে না না না লক্ষ্য করে পারবে না না পারবে না না না
 যে যখন মৌমাছিরা পোড়ে
 তারা হয়ে ওঠে নরম লাল ভেলভেটের মত
 ভঙ্গুর যেন নীল চোখের খোলা তারা
 আর তারপর তারা মরে

 আগুন আসার আগে
যা গলিয়ে দেয় মৌ-কুঠুরি
এবং মৌচাকের শেষ স্বপ্নগুলির উত্তোলন। প্রকৃতপক্ষে মুহূর্তের জন্য, বাতাসে
 মৃদু আলোড়ন
যখন তারা বাষ্পীভূত হয়।
 আর যেহেতু মৌমাছিদের স্বপ্নে
 ফুলের সৌরভ
বহুক্ষণ পরেও
পরবর্তী চাকের বৃথা চেষ্টা
 বাগানের কোনো
উঁচু স্থানে।

২.
অসম্ভব কবিতা

 একটা পাখি আছে যে
রাতের বেলা গাছের ওপর বসে ঘুমাবে না না বসে ঘুমাবে না না বসে ঘুমাবে না গাছের ওপর বসে ঘুমাবে না না বসে ঘুমাবে না না বসে ঘুমাবে না
 ডানা ভাঁজকরা, নিশ্চল
সে ঘুমায় শূন্যে

কেউ তাকে ধরে রাখে না উচ্চতায়

 দিনের বেলার উড়ান তাকে ক্লান্ত করে
সে ডানা ঝাপটায় কারণ
পায়ের অভাব, অপরিণত
কীভাবে সে জানবে অন্যেরা মাটি স্পর্শ করে
 এভাবেই সে ডানা ঝাপটায়

 কিন্তু রাতের বেলা শান্ত হয়ে
সে ঘুমায় লম্বভাবে
একটা ছোট্ট সোজা কফিন
মাটির স্পর্শ না করেই তুমি এমনকি বলতে পারো
 সে শুয়ে আছে

দিনের বেলা সে আবার উড়ান দেয়

No comments:

Post a Comment

ব্যক্তিত্ব || এক ভিন্ন আঙ্গিকের শিল্পী নরসিংহ দাস || নিজস্ব কলম

ব্যক্তিত্ব || এক ভিন্ন আঙ্গিকের শিল্পী নরসিংহ দাস || নিজস্ব কলম মেদিনীপুর শহরের বাসিন্দা, ভূগোল শিক্ষক, মহিষাগেড়্যা এ. এম. এ. হাই মাদ্রাসা ...