মঙ্গলবার, ১২ জানুয়ারী, ২০২১

কিছু বই কিছু কথা । নীলাঞ্জন কুমার || জবরদখল । নাসের হোসেন । কবিতা পাক্ষিক

কিছু বই কিছু কথা । নীলাঞ্জন কুমার




জবরদখল । নাসের হোসেন । কবিতা পাক্ষিক
। কুড়ি টাকা ।


সদ্য প্রয়াত হয়েছেন যে সব কবি,  তাঁদের মধ্যে যাঁদের মৃত্যু  বিশেষভাবে নাড়া  দিয়েছে তার মধ্যে কবি নাসের হোসেন একজন । ১৯৯৮ সালে শুভ বিজয়ার দিন নাসের নিজের হাতে তুলে দিয়েছিল ওঁর সে সময়ের  সদ্য কাব্যগ্রন্থ  ' জবরদখল ' । সে সময় বইটি পড়ে বুঝে ফেলেছিলাম তাঁর কবিসত্ত্বা। বড় অসম্ভব অনুপ্রেরণার তাঁর এই কাব্যগ্রন্থটির ' জবরদখল ' কবিতার শেষ পংক্তি:  ' ক্রান্তিপথ তার নির্বিভেদ সীমানায় ছড়িয়ে রাখছে/  শুকনো মরণশীল চিহ্ন ও চিহ্নিতগুলিকে ' । পাশাপাশি আরো পাই তাঁর এ ধরনের অনবদ্য পংক্তি: 
' পা ফেলে ছোপ ছোপ শরীর নিয়ে সে মিলিয়ে যাচ্ছে দিগন্ত/ থেকে দিগন্তে ' ( ' অভিমান ') , নীলাভ ঢেউ শুধু আছড়ে পড়ে আছে তটে,  আস্তে আস্তে অন্ধকার/  হয়ে যায়,  অশ্বত্থ গাছে কথা বলে ব্যাঙ্গমা ব্যাঙ্গমী ' ( নীলাভ ঢেউ)  ।
            কবি নাসের হোসেন কি কারণে গুরুত্বপূর্ণ কবি তা এই পংক্তি বুঝিয়ে ছাড়ে সচেতন পাঠকবর্গকে । নাসের সেই প্রিয়তার কবিতা দিয়ে ঘিরে রাখে আমাদের,  আমরা পড়ে চলি আর পড়ে চলি, মনে মনে বলি যেন না ফুরোয় ! কবির এই বইটিতে ছড়িয়ে বাস্তবতা,  কাঠিন্য,  ভালোবাসা, শৈথিল্য যা আন্তরিক হয়ে দাঁড়ায় তাঁর কাব্যময়তায় । তা পাই:  ' বালকটি ঐ  মাছগুলোকে নিয়ে পাশের পুকুরে ছেড়ে আসতে যাচ্ছে,  সে জানে না আপেক্ষিকতা,  জীবন ও আজীবনের দ্বন্দ্ব,  সে শুধু মুক্তি জানে ' ( রঙিন মাছ)  , '  নীল আকাশ স্বচ্ছ মেঘ দু ' চারটে সীগাল,  আর/  একটানা চুমুর শব্দ ভেসে আসছে সেই ঘনবদ্ধ প্রিজমের থেকে ' ( প্রিজম)  - এর ভেতরে ।
     নাসেরকে নিয়ে অনেক কথা লেখার এখনো অনেক বাকি , অনেকেরই । নাসের কবিতার মধ্যে দিয়ে আমাদের সঙ্গে থাকবে । থাকতেই হবে।  বইটির প্রচ্ছদ  ( শিব চৌধুরী কৃত)  একদম দাগ কাটে না ।।




কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

আটপৌরে কবিতাগুচ্ছ ~১৪/৫ || "আই-যুগ"-এর কবিতা দেবযানী বসু || Atpoure poems, Debjani Basu

  আটপৌরে কবিতাগুচ্ছ ~১৪/৫ || "আই-যুগ"-এর কবিতা দেবযানী বসু || Atpoure poems, Debjani Basu আটপৌরে  ১৪/৫ ১. লোডশেডিং হবে অজানিত পতিত...