সোমবার, ১ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

কিছু বই কিছু কথা ২৭২ । নীলাঞ্জন কুমার || এ সবই কথার কথা । গৌতমকুমার দে । প্রোরেনাটা

কিছু বই কিছু কথা  ২৭২ ।  নীলাঞ্জন কুমার 




এ সবই কথার কথা  । গৌতমকুমার দে । প্রোরেনাটা
। পন্ঞ্চাশ টাকা ।

' ভোরবেলে হাত দিলে আইহোল ঠিক করে/  কে যায়   কে আসে, কে আসে কে যায় । ' ( ' ছোট বাড়ি ' ) কিংবা ' সময় বেরিয়ে যায় সময়ের হাত ধরে/  কোন কথাই কোনদিন কারো সাথে/  বলা হল না,  বলা হল না । '  ( ' আলাপ ' ) - এর  ভেতরে যে আবেগ তাকে কাব্যিকতায় আনতে চেয়েছেন কবি গৌতমকুমার দে  তাঁর কাব্যগ্রন্থ ' এ সবই কথার কথা ' তে ।আসলে কবি তাঁর শিরোনাম অনুসারে কথার কথা বলার চেষ্টা করে গেছেন সহজে । যেখানে কখনো সখনো কাব্যিকতার কিছু কম অনুপাত চোখে পড়ে, কিন্তু তা বাদেও তাঁর চেষ্টার ভেতরে কোন খাদ তেমন পাওয়া যায় না । যেমন:  ' আমরা আজ একাকী সময়ে / তাকাই শুধু আকাশের দিকে-  / পৃথিবীর দিনগুলো শুধু সমুদ্র- ঢেউয়ের মতো ' ( চিরন্তন ' ) কিংবা ' পৃথিবী মাতাল হলে/  দুই করতল জুড়ে আমি/  তোমাকেই ডাকি/  তোমাকেই চাই/  বিপন্ন বিস্ময়ে! ' ( ' তোমাকেই চাই ')।
               দীর্ঘদিন  ধরে কবিতার সঙ্গে বসবাস করা এই কবির ভেতরের গভীরতা প্রচুর সাধারণ কথার ভেতর দিয়ে গড়ে তোলেন কবিতা বলে অনেক সময় তার কবিতার ভেতরে আপাতভাবে লঘুভাব প্রকট হয় । কিন্তু একটু গভীর বিশ্লেষণে এলে  তার কবিতার প্রকৃত নির্যাস পাওয়া যায় । ফলে তখন আর কথার কথা থাকে না । তবে বইটির কিছু কবিতা যদি নির্বাচনের বাইরে রাখা যেত তবে তা আরো উপভোগ্য হতে পারতো । হাশেম খান এর জলরঙে কাজ করা ছবি যা প্রচ্ছদে ব্যবহার করা হয়েছে তা চিত্র হিসেবে আলাদা করে বাহবা যোগ্য । বইটির ভেতরে চারু খানের স্কেচ বেশ উপভোগ্য ।


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

পূরবী~ ৫৯ || অভিজিৎ চৌধুরী || Purabi~ 59

  পূরবী~ ৫৯ অভিজিৎ চৌধুরী শেষ লেখা কবিতায় রবীন্দ্রনাথ একদিন লিখলেন,  মিথ্যে  বিশ্বাসের ফাঁদ পেতেছো নিপুণ হাতে। তীর্থও জানে,একদওন সব শূন্য কর...