মঙ্গলবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

কিছু বই কিছু কথা ২৭৩ । নীলাঞ্জন কুমার || ফুল তোলা কুয়াশা । ধীমান চক্রবর্তী । নান্দীমুখ সংবাদ । পঁয়ত্রিশ টাকা ।

কিছু বই কিছু কথা ২৭৩ । নীলাঞ্জন কুমার




ফুল তোলা কুয়াশা । ধীমান চক্রবর্তী । নান্দীমুখ সংবাদ । পঁয়ত্রিশ টাকা ।


' ধূসর জিপসি বৃষ্টিরিক্সা ' , ' বয়সসন্ধিতে কয়েক মাইল নিষিদ্ধ পায়রা ' কিংবা ' জ্যোৎস্নাকলস ' এর মতো প্রথার বাইরে রাখা বইয়ের শিরোনামের মতো কবিতা  কবি ধীমান চক্রবর্তীর  কবিতার ভেতর প্রতিভাত । তাঁর পনেরো বছর আগে প্রকাশিত ' ফুল তোলা কুয়াশা ' কাব্যগ্রন্থের ভেতরে গতানুগতিকতার বাইরে কবিতা যে পাওয়া যাবে তা বলে দিতে হয় না । সে কারণে তাঁর কবিতা হয়ে ওঠে বুঝিদীপ্ত পর্যবেক্ষনে সমৃদ্ধ,  যেমন : ' হারানো আগুনে পাঠরত/  রুমাল চুমকি পৃথিবী/ যা বলে এক কুহু লম্বা আলো করিডোর । স্বেচ্ছাচারী/  গ্যাস উনুন থেকে ' ( এক কুহু লম্বা আলো- করিডোর) , ' চাঁদনি রিসিভার নূপুর পরায়/  ময়ূরের নগ্ন জ্যামিতিতে । '
        কবি ধীমান চক্রবর্তী র কল্পচিত্রগুলি আত্মীকরণ করত গেলে আমাদের বারবার পড়া ছাড়া উপায় নেই । তাই তাঁর কবিতা ভালোরকম সময় চায় পাঠকের কাছে । চায় ভাবনা,  দুরূহতার ভেতরে ডুবে যাওয়ার সদিচ্ছা ।  তাঁর  আলোচ্য বইটির পরতে পরতে তাই যে উচ্চারণের মায়াজাল ছড়িয়ে আছে তাতে ধরা পড়তে ইচ্ছে হতে পারেই পাঠককুলের । নাহলে ' দুরভাষে দেওয়াল বাতি/  ওয়াইপার দিয়ে-  / একটু রোদ ঘষে দেয় চিকিৎসকে । ( ' এই দুপুর ') , ' ঘুঙুর বাজছে/  চুইংগাম চেবানো রুকস্যাকে ' ( ' রঙের এক আধটা চাঁদ ')  এর মতো অস্পষ্ট ও মায়াময়  কাল্পনিক জগৎ এত  ভালোবাসা নিয়ে পাঠকের কাছে আসতো না । প্রচ্ছদের দিক থেকে প্রতীক চক্রবর্তী এই জগৎকে চিত্রে ফুটিয়ে তুলতে চেষ্টা করেছেন ।


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

আজ অভিভাবকহীন হলাম || বাসুদেব দাস

আজ অভিভাবকহীন হলাম বাসুদেব দাস   অন্যান্য দিনের মতো আজও সকালবেলা ঘুম থেকে উঠে কম্পিউটারে সৌরভ কুমাৰ চলিহার একটি গল্প বাংলায় অনুবাদ করছিলাম...