বৃহস্পতিবার, ৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

কিছু বই কিছু কথা ২৭৫ । নীলাঞ্জন কুমার || যুদ্ধ বিরোধী কবিতা । সংকলকের নাম, প্রকাশক ও মূল্য উল্লেখ নেই ।

 কিছু বই কিছু কথা  ২৭৫ । নীলাঞ্জন কুমার



যুদ্ধ বিরোধী কবিতা । সংকলকের নাম,  প্রকাশক ও মূল্য উল্লেখ নেই



১৯৯৫ সালে তেরটি কবিতা নিয়ে হিরোশিমা নাগাসাকির আনবিক গণহত্যার পন্ঞ্চাশ বছর উপলক্ষে  যে ক্ষুদ্র সংকলন প্রকাশ করা হয়েছিল তার ভেতরে এক অন্য অনুভূতি যে আছে তা  স্পষ্ট করে এই সংকলন । কবি রমেন আচার্যের কবিতায় তাই পাই:  ' মানুষ কি থাকে তাহলে/  যদি তার হৃদয়ই না থাকে ! / সেই বিকৃত মনকে দেখে নিই ইতিহাস ঘেঁটে/  হিরোশিমা নাগাসাকির তেজস্ক্রিয় ছাই ঘেঁটে ঘেঁটে! ' ( ' তেজস্ক্রিয় ছাই ঘেঁটে ') , কবি রতন দাস লেখেন:  ' কালো মেঘের ছাতার নীচে দাঁড়িয়ে আছি আমরা/  আর কতো বিষ মাখতে হবে গায়ে? ' ( ' যুদ্ধের বিরুদ্ধে ') , কবি বিপ্লব মাজীর ' যুদ্ধের বিরুদ্ধে একটি মোমবাতি ' র ভেতরে তাই খুঁজে পাই সেই অমোঘ প্রশ্ন:  ' হাজার হাজার যুদ্ধের/  জন্ম মৃত্যু ঘটে গেছে এ গ্রহে ; / এখনো যেন নক্ষত্র যুদ্ধের জরদগব আশা? ' ।
          যে সব কবিদের নিয়ে এই সংকলন তাঁরা যে সবাই কুশলী কবি ও মানবতাবাদী তা তাঁদের কবিতা পড়লেই বেশ বুঝতে পারি । প্রত্যেক কবির ভেতরে মিশে আছে জীবনের প্রতি ভালোবাসা ও শুভেচ্ছা । সে কারণে কবি কৃষ্ণ ধরের কবিতা ' রণদানবকে, না ' তে পাই:  ' শিয়র দুয়োরে দিচ্ছে দোসর/  যতই বাড়াক হাঁ/  যম দুয়োরে দিচ্ছে কাঁটা/  দানব হটে যা । ' আবার মুকুল গুহের কবিতা আমাদের আবেগী করে দেয়:  ' বন থেকে বেরোল টিয়ে/  বোমার মুকুট মাথায় দিয়ে,  / আয় টিয়ে তোর সঙ্গে যাই,  / হিরোশিমাকে চুমু খাই । ' গোটা সংকলনটির কবিতাগুলি মনে করায় হিরোশিমার নাশকতা,  যা শান্তির কামনা জোরালো করে দেয় ।





কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

পূরবী~ ৫৯ || অভিজিৎ চৌধুরী || Purabi~ 59

  পূরবী~ ৫৯ অভিজিৎ চৌধুরী শেষ লেখা কবিতায় রবীন্দ্রনাথ একদিন লিখলেন,  মিথ্যে  বিশ্বাসের ফাঁদ পেতেছো নিপুণ হাতে। তীর্থও জানে,একদওন সব শূন্য কর...