শুক্রবার, ৩১ জুলাই, ২০২০

হঠাৎ কুয়াশার ফাইবারে || শুভ্রনীল চক্রবর্তী || কবিতা

হঠাৎ কুয়াশার ফাইবারে 
শুভ্রনীল চক্রবর্তী


কাল রাতে প্রকৃতি এসছিলো
দিশাহারা হয়ে কিছু গাছের পাতা
ছুটে বেড়াচ্ছিল
       রাস্তায় পড়ে থাকা মুঠোফোন সরিয়ে দিতে
ছুটে বেড়াছিল
     আকাশ থেকে নেমে আসা ঢেউ
        তার জন্য পথ বানাতে

ধুয়ে দিয়ে যাচ্ছিল বহুদিনের মিশে থাকা এক কোষী ডিজিটাল ভাইরাস

আমি অবাক হয়ে বারান্দায় দাড়িয়ে দেখছিলাম
জানলার ওপারে সম্পূর্ণ এক অন্য পৃথিবী
শুধু  মাঝবরাবর সময়ের স্নায়ুরেখা
ধীরে ধীরে প্রকৃতি আমার দিকে এগিয়ে আসছে
ধারণ করছে এক নতুন সৃষ্টিকল্প
একে একে শোধন করছে
    প্রতিবেশীদের কার্নিশে জমে থাকা দুহাজার   
                      বছরের জড়াজীর্ণতা

স্থাপন করে যাচ্ছে তার যুগতত্ত্ব বাদ
হঠাৎ এক মর্শুমী স্পর্শে মুছে গেল সভ্যতার এত বছরের অহংকার
প্রযুক্তির গরিমা
দমকা হওয়ার দাপটে মুখ থুবড়ে পড়ে গেল
সভ্যতার ধ্বজাধারী যন্ত্র সৈন্য
ছিড়ে যেতে লাগলো একের পর এক স্তরে বিন্যস্ত
তথ্যতন্তু

প্রকৃতি ধীরে ধীরে এগিয়ে আসতে থাকলো
আমার দরজার দিকে
পেছনে বিধ্যস্থ হয়ে দাড়িয়ে থাকা
কিছু পারমাণবিক চুল্লী ,
তছনছ হয়ে যাওয়া সখের অপটিক্যাল ফাইবার
সবাই ইশারা করলো আমায়
প্রাণভিক্ষা করতে বললো রুদ্রার রুদেল তটে

আমি অবাক হয়ে বারান্দায় দাড়িয়ে দেখছিলাম
আমার দরজার বাইরে
প্রকৃতির ভীষণ সুন্দর রূপ
প্রসবকালীন মাতৃত্বে ভরা এক অগোছালো সৌন্দর্য তার
আমাকে তার জঠর ভরা ইতিহাস দেখাতে দেখাতে বলে গেলো -
      আজ কাল পরশু বলে কিছু নেই
      পুরোটাই চক্রাকারে আবর্তিত এক পর্যায় মাত্র ।।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

একগুচ্ছ হাইকু || সুধাংশুরঞ্জন সাহা || কবিতা

একগুচ্ছ হাইকু সুধাংশুরঞ্জন সাহা (এক) আমার আছে নানা রঙের পাখি মায়াবী চোখে । (দুই) দুদিন ছিল একটু মনমরা ঘরে বাইরে । (তিন) আজ আবার মানুষ মেখেছ...