সোমবার, ২৭ জুলাই, ২০২০

কিছু বই কিছু কথা || নীলাঞ্জন কুমার || নিজস্ব পালক

কিছু বই কিছু কথা । নীলাঞ্জন কুমার

নিজস্ব পালক । খগেশ্বর দাস । বাকপ্রতিমা । পঁচিশ টাকা ।

প্রতিদিনকার বাঁচবার জন্য স্বাভাবিক কাজকর্ম নিয়ে যারা বেঁচে থাকার চেষ্টা করেন,  তাদের মধ্যে কবিতা ভাবনা সন্ঞ্চারিত হওয়া ব্যতিক্রমী ব্যাপার । কবি  খগেশ্বর দাস সেরকম মানুষ নন তাই তাঁর কবিতায় ফুটে ওঠে প্রতিদিনকার চিন্তার বাইরে এক বিশেষ চিন্তা । যা কবিতাপ্রেমী সিরিয়াস পাঠক পেতে চায় প্রতিনিয়ত, কিন্তু তা পেতে তাদের অনেক সাধ্যসাধনা করতে হয় ।খগেশ্বর দাসের কবিতা ভাবনার সাক্ষী থেকেছে তাঁর কাব্যগ্রন্থ ' নিজস্ব পালক ' । সেখানে তিনি লেখেন:  ' এভাবেই একদিন কাচের স্বচ্ছতা পেয়ে গেলে/  লেখা হয়ে যায় একটি রৌদ্রদিনের কবিতা ' ( ' রৌদ্রদিনের কবিতা ') , 'পূর্ব আকাশে সূর্যের ছবি আঁকতে/ আমিও উঠোনে লাগিয়েছি/  কৃষ্ণচূড়ার গাছ ।' ( ' সূর্যের ছবি আঁকতে ' )।
         কবি খগেশ্বর প্রকৃতই স্বপ্ন দেখেন এক স্বচ্ছ পৃথিবীর , প্রকৃত কবির মতো । কিন্তু যখন বোঝেন এই পঙ্কিল পৃথিবীর মধ্যে পাওয়া দুরূহ তখন তাঁর দুঃখ বাড়ে । ' তবু কেন পুড়ে যাচ্ছে হাড়মাস/ তবু কেন টের পাচ্ছি আগুনের শিখা ' ( 'তবু কেন ') , ' পা আঁকতে যতবার দাগ টানি/  হয়ে যায় পিস্তল । '( 'মানুষ আঁকতে গিয়ে ') পংক্তি সেখান থেকে বেরিয়ে আসে ।
          কবির এই কাব্যগ্রন্থের বয়স ২৩ বৎসর । প্রথম কাব্যগ্রন্থ । সেজন্য বয়সগত কারণে তার ভেতরে কিছু চন্ঞ্চলতা ও ব্যগ্রতা পাওয়া যায় এখানে । যার ভেতর তেমন কাব্যিক কৌশল না পেলেও তাঁর সৎ উচ্চারণের জন্য কাব্যগ্রন্থ আকর্ষণ করে । যা এখনো বজায় রেখে চলেছেন । প্রণবেশ মাইতির প্রচ্ছদ অত্যন্ত সাদামাটা হলেও ইঙ্গিতবাহী। ওই সময় ওই ধরনের  প্রচ্ছদের দিকে শিল্পীদের ঝোঁক দেখা গিয়েছিল।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

একগুচ্ছ হাইকু || সুধাংশুরঞ্জন সাহা || কবিতা

একগুচ্ছ হাইকু সুধাংশুরঞ্জন সাহা (এক) আমার আছে নানা রঙের পাখি মায়াবী চোখে । (দুই) দুদিন ছিল একটু মনমরা ঘরে বাইরে । (তিন) আজ আবার মানুষ মেখেছ...