বুধবার, ২০ জানুয়ারী, ২০২১

কিছু বই কিছু কথা ২৬০। নীলাঞ্জন কুমার তিরিশে ফেব্রুয়ারি । অনিন্দ্য রায়

 কিছু বই কিছু কথা  ২৬০। নীলাঞ্জন কুমার




তিরিশে ফেব্রুয়ারি । অনিন্দ্য রায়
। এখন বাংলা কবিতার কাগজ ও জার্নি 90S-এর যৌথ উদ্যোগ । পন্ঞ্চাশ টাকা ।

' বারান্দার পোষাকগুলো ঝুলছে আর রাস্তায় লোক/  পোষাক দেখে ভাবছে আমার কথা/  ঘরে আঁশরঙা ঘুমের ভেতর শুয়ে আছি ' - র মতো প্রচুর কবিতা নিয়ে ১৯৯২- ২০০৭সালের রচনাকালে ২০১০ এ প্রকাশিত কবি অনিন্দ্য রায়ের  ' তিরিশে ফেব্রুয়ারি '' সেই কাব্যগ্রন্থ যার ভেতরে এক অবাক উচ্চারণ বাসা বেঁধে থাকে,  যাকে খুঁজে পেলে গোটা বইটি না পড়ে থাকতে পারা যায় না । যার থেকে আহরণ করতে পারা যায়:  ' যখন লিখতে পারতাম ফেব্রুয়ারির চরিত্র আমার লম্বাটে খাতায়  / কেউ বুলিয়ে দিয়েছিল খয়েরি রাবার,  আর ঘুমিয়ে পড়েছিলাম ' , ' বাঁশপাতা,  তোমাকে বাতাসে ওড়াব ' , ' আমার হাত ধরে আমাকেই নিয়ে যাই বাতাবিবেলায় ' এর মতো উচ্চারণ ।
       বলা যায় এই কবির কবিতাতে বড় বেশি শব্দময়তা ও অপার্থিবতার দিকে বেশি ঝোঁক । যার ফলে কিছু কিছু সময় বড় বেশি একই ধরনের কবিতা পাঠকের বিব্রত করার কারণ হতে পারে । কিন্তু তবু কবিতার ভেতর ছুঁয়ে থাকা কাব্যিক প্রবণতার অনেক উদাহরণ আমরা পেয়ে যাই , যেমন:  ' আমরা রাত্রির নাম রাখলাম আস্তাবল আর হ্রেষা দিয়ে ভরিয়ে দিলাম বিবাহকালীন পরিবেশ । ' ( আস্তাবল ') 'শ্রীমোম,  প্রতিভা গলে পড়ছে আগুন/  দুর্বৃত্ত ... তোমার রিপু সুতো ছিঁড়ে আত্মপ্রতারক ' ( অক্ষরশরীরে বৃষ্টি- ৩ ' )বহু যত্ন করে গড়া কাব্যবিন্যাস । অতনু বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রচ্ছদ ব্যন্ঞ্জনাধর্মী,  যা কাব্যগ্রন্থের প্রকৃতি তুলে ধরে ।



কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

বিদেহ নন্দিনী || ডঃমালিনী || মূল অসমিয়া থেকে বাংলা অনুবাদঃ বাসুদেব দাস || Bideha Nandini- 20

বিদেহ নন্দিনী ডঃমালিনী  মূল অসমিয়া থেকে বাংলা অনুবাদঃ বাসুদেব দাস    (বিশ) চিত্রকূট ছেড়ে আসার পর থেকে দুর্ভাগ্য আমাদের পিছু ছাড়ছে না। মাঝ...