Friday, May 8, 2020

রুদ্র কিংশুক || পিটার চোখভ-এর কবিতা || বিশ্বদুনিয়ার নতুন কবিতা

বিশ্বদুনিয়ার নতুন কবিতা 
রুদ্র কিংশুক

পিটার চোখভ-এর কবিতা

পিটার চোখভ (Petar Tchouhov)--এর জন্ম বুলগেরিয়ার সোফিয়া শহরে। প্রথমে গ্রন্থাগার বিজ্ঞানে স্নাতক এবং পরে সমাজ বিজ্ঞানে  স্নাতকোত্তর, পিটারের কবিতা বুলগেরিয়ার সহ পৃথিবীর বিভিন্ন  দেশের পত্রপত্রিকা ও কাব্য সংকলনে প্রকাশিত । কবিতার ফর্ম হিসেবে হাইকু  পিটারের খুব প্রিয়।ইমেজিস্ট ও বিট  কবিদের অনেক বৈশিষ্ট্য তাঁর রচনায় পরিলক্ষিত। পিটার একজন রক-মিউজিশিয়ানও। তিনি নিয়মিত পারফর্ম করেন।

নীরব

 আমাদের মায়েরা নিখোঁজ---
 কিনতে বার হয়েছিল
কিছু সুস্বাদু
আর ফিরে আসেনি

আমাদের পিতারা নিখোঁজ ----
দেখতে গেল
তাদের পিতাদের সমাধি
আর সেখানেই তারা থেকে গেল

আমাদের ভাইয়েরা
আর বোনেরাও নিখোঁজ ----
ছুটে গেল খুঁজতে
তাদের বাপমাকে
আর পথ হারালো

আমাদের ছেলেমেয়েরাও
নিখোঁজ
খুন হয় রাস্তায়
নিজেদের স্বপ্নের দ্বারা

তাইতো
এই ছেলেভোলানো গান
এখন
আমাদের জন্য

শুভরাত্রি
শুভরাত্রি
 শুভরাত্রি

প্রস্তরফলক
আমার বাবার
হিমশৈলের মতো জেগে উঠছে
মৃত্যুসাগর থেকে

তার আধ- মিটার
দৃষ্টিগ্রাহ্য
অদৃশ্যটুকু আমার ভেতরে

হাইকু
১.
 বসন্ত সূর্য
অসমাপ্ত শব্দ
কী-করনীয় তালিকার ওপর
২.
মোমালোকিত গির্জা
সমস্ত ছায়া
আমারই
৩.
অবিশ্রান্ত বর্ষণ
পাঠাগারের বই
যা আর নেই
৪.
পূর্ণ চাঁদ
গর্ত
তার বিবাহ অঙ্গুরীয়
৫.
তার নাম
বাঁধা নৌকার গায়ে
গ্রীষ্ম শেষ হয়
৬.
দীর্ঘতম রাত
দঁড়কাক চুরি করে চোখ
বরফ-মানুষের

জিসাস ক্রাইস্ট সুপারস্টার

আমি ছিলাম
হলিউডেও

বৃষ্টি হলো
 ক্যালিফোর্নিয়া ছিল যেন আমার মা রৌদ্রকরোজ্জ্বল সবার কাছে, আমি ছাড়া

আমার মাথার ওপর ব্যক্তিগত মেঘ
আমি হাঁটলাম গাড়ি ও হোটেলের মাঝখান দিয়ে তখন দেবদূতেরা জড়ো হয়েছে বিদায় দিতে

 আমি হেঁটে গেলাম মরুভূমির ভেতর
মরীচিকা তরঙ্গের ওপর  হাঁটলাম, নগ্নপা

আমি ফিরে চাইলাম
 দেখলাম অগণিত মানুষ
আমাকে রাস্তায় অনুসরণ করছে

লাস ভেগাসের দিকে


সেফটি-পিনস
১.
ফেলে -দেওয়া খেলনা
প্রস্তর-ফলকের পাশে
হেমন্ত গোধূলি
২.
সকালের কুয়াশা
কেউ দেখে না
পাতাঝরা
৩.
 ঠান্ডা সকাল
দুটো হারানো বিড়াল
 কুকুর-আস্তানায়
৪.
হঠাৎ বৃষ্টি
আমি ভাগ করে নিই ছাতা
স্ট্যাচুর সঙ্গে

৫.
ভূতচতুর্দশীর দিনে
আমি খুলি বাবার
কালো ছাতা

1 comment:

  1. "হঠাৎ বৃষ্টি আমি ভাগ করে নিই ছাতা স্ট্যাচুর সঙ্গে"- খুব ভালো লাগলো। অনন্য

    ReplyDelete

পূরবী-৩৬ || অভিজিৎ চৌধুরী || ধারাবাহিক উপন্যাস

পূরবী(৩৬)  অভিজিৎ চৌধুরী। হুগলির গঙ্গা আর মা যে"ন মিলেমিশে রয়েছে তীর্থের স্মৃতির খাতায়।এখন খুব বিতর্ক হচ্ছে কোন ভাষা ক্লাসিকাল তা নিয়ে।...