Monday, June 29, 2020

কিছু বই কিছু কথা || নীলাঞ্জন কুমার || প্রাত্যহিক বিভাগ

কিছু বই কিছু কথা । নীলাঞ্জন কুমার


চন্দন বনের রুদ্ধ সংগীত । বিশ্বজিৎ রায় । সারঙ্গ প্রকাশনী । একশো টাকা ।

' সম্ভাবনাগুলি মিহি গুঁড়ো হয়ে মিশে যায়/  অন্তর্জালে বেজে ওঠে/  স্বপ্ন মাদল ...' নয়তো ' ধুলোমাটি মেখে/ নদীতে পা ডুবিয়ে বসে থাকব, আর/ ভাটিয়ালি বাজিয়ে লিখব/  নতুন জীবনের কবিতা ...'-র মতো কবিতার লাইন উপহার দেওয়ার কবি বিশ্বজিৎ রায় তাঁর সাম্প্রতিক কাব্যগ্রন্থ ' চন্দন বনের রুদ্ধ সংগীত ' -এ ক্রমশ আরো বেশি প্রত্যাশা গড়ে তোলেন । বিশ্বজিৎ লেখেন তাঁর মতো নিজস্ব কৌশলে, তাঁর লেখার ডিকসনে থাকে জীবনকে ধরাছোঁয়ার সঙ্গে লেগে থাকা মায়ান্ঞ্জন, যা অস্বীকার করা যায় না । সে কারণে: ' রাতে টুকরো চাঁদের আলো নেমে এসে/  স্নিগ্ধ আদর বুলিয়ে দিয়ে যায় আমার সর্বাঙ্গে ....' -র মতো পংক্তি চিত্তে  আরাম দিয়ে যায় ।
            বিশ্বজিৎ ঠিক যতখানি ভালোমানুষ  তাঁর কবিতায় ঠিক ততটাই ভালোমানুষির সন্ধান পাই । তাঁর কবিতা অহেতুক স্মার্ট নয়, সচেতন কবিতা পাঠক যা চান তাই তিনি নিরিবিলিতে ছড়িয়ে দেন । অহেতুক জটিলতার ভেতরে তিনি নেই ।
          কবির সমস্ত বই পড়ে ফেলার কল্যাণে বলতে পারি , তাঁর কবিতা প্রতিটি কাব্যগ্রন্থে আলাদা আলাদা উচ্চারণ দিতে সচেষ্ট । ব্যন্জ্ঞনায় ঘিরে রাখে পাঠককে ।
সেখানে কবির  ত্রুটি ধরা গৌণ ।
            আমরা আশা করব বিশ্বজিৎ ' আমার পোশাক খুলে পড়ে, / আমার উর্ধাঙ্গে আলো/ নিম্নাঙ্গে অন্ধকার খেলে যায় '-এর মতো বোধকে বশ করে নেওয়া কবিতা আরো উপহার দেবেন । মুক্তিরাম মাইতির প্রচ্ছদের দিকে তাকিয়ে একটাই শব্দ উচ্চারণ করা যায়,' ওয়াও ' ।

No comments:

Post a Comment

পূরবী- ৩৫ || অভিজিৎ চৌধুরী || ধারাবাহিক উপন্যাস

পূরবী~৩৫ অভিজিৎ চৌধুরী দিদিদের বাড়ির রাস্তার নাম ছিল চার্চ রোড।ছিমছাম পাড়াটা।তীর্থের সেই দিদির নাম ছিল ইলা। কোন কোন দিন একটু দূরের মাঠে ক্রি...